বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০ ইং, বাংলা ২৬, চৈত্র ১৪২৬

বিজেপি ক্ষমতায় তাই মন্দিরের পক্ষে রায় : এমপি

বিজেপি ক্ষমতায় তাই মন্দিরের পক্ষে রায় : এমপি
  • -

মনসুখের এই মন্তব্যের একটি ভিডিও সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিজেপি এমপি মনসুখ ভাসাভা গুজরাটিতে বলছেন, ‘‌রাম মন্দির অনেক পুরনো বিষয়। ভারত স্বাধীন হওয়ার পর অনেক বছর কেটে গেছে। তখন থেকেই রাম জন্মভূমি নিয়ে আন্দোলন চলছে। এই আন্দোলনে অনেক মানুষ নিহত হয়েছেন। কিন্তু, আজ কেন্দ্রে বিজেপি-র সরকার রয়েছে বলেই সুপ্রিম কোর্টকে মন্দিরের স্বপক্ষে রায়দান করতে হলো।’

অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে রায় দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। গুজরাটের ভারুচের সংসদ সদস্য মনসুখ ভাসাভার দাবি, ‘কেন্দ্রে বিজেপি সরকার আছে বলেই অযোধ্যায় মন্দিরের স্বপক্ষে রায় দিয়েছে শীর্ষ আদালত।’

এই ভাষণের সময় ভারুচের গেরুয়া এমপির সঙ্গেই মঞ্চে বসেছিলেন ভারুচের বিজেপি বিধায়ক দুষ্মন্ত পটেল, ভাগ্রার বিজেপি এমপি অরুণ সিং রাণা, ভারুচের বিজেপি সভাপতি যোগেশ পটেল, স্থানীয় পুরসভার প্রধান সুরভীবেন তামাকুওয়ালা।

ওই মঞ্চ থেকেই মনসুখ কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের প্রশংসা করেন। তার কথায়, ‘দেশজুড়ে একজন বিজেপি এমপি কোনো দিনই ভাবতে পারেনি জম্মু-কাশ্মিরে ৩৭০ ধারা রদ করা হবে। কিন্তু, প্রধানমন্ত্রী মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের জন্যই তা বাস্তবায়িত হয়েছে। অনেকেই বলেছিলেন এর জন্য দেশে অরাজক পরিস্থিতি তৈরি হবে। পাকিস্তানসহ বেশ কয়েকটি দেশ চোখ রাঙাবে। কিন্তু, এসব কিছু হয়েছে কি? এটা সম্ভব হয়েছে মোদির কৌশলী পদক্ষেপের জন্যই।’

কেন হঠাৎ এই মন্তব্য করে বসলেন মনসুখ ভাসাভা? তবে কী এই রায় ‘পূর্বনির্ধারিতই’ ছিল‌? ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে তিনি বলেন, ‘আমার কথার অর্থ দেশে বিজেপি সরকার রয়েছে বলেই আইন-শৃঙ্খলা বজায় রয়েছে। অন্য কোনো সরকার থাকলে তা সম্ভব হতো না। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের আগেই সরকারের তরফে মানুষকে শান্ত থাকার আবেদন করা হয়েছিল। তাতে সাড়া দিয়েছে দেশবাসী।’
ভাসাভা যাই বলুন না কেন, তার বিস্ফোরক দাবি ঘিরে তোলপাড় শুরু হয়েছে ভারতজুড়ে।

সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


এ জাতীয় আরো খবর