শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং, বাংলা ৪, আশ্বিন ১৪২৭
  • -

নুসরাত হত্যায় সক্রিয় ছিলেন হাফেজ কাদের

নুসরাত হত্যায় সক্রিয় ছিলেন হাফেজ কাদের

মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যায় সক্রিয় ছিলেন সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আবদুল কাদের।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন আহম্মেদের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে কাদের এ কথা জানান।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্পেশাল এসপি মো. ইকবাল বলেন, হাফেজ আব্দুল কাদের জবানবন্দিতে নুসরাত হত্যায় সক্রিয় থাকার কথা স্বীকার করেছেন। ঘটনার দিন মাদরাসার গেইট পাহারায় ছিলেন। এছাড়া হত্যার পরিকল্পনাকারীদের মধ্যে তিনি অন্যতম। তার কক্ষে বসে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়। তিনি অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার সহযোগী ও মাদরাসার হেফজ বিভাগের প্রধান।

এর আগে ১৭ এপ্রিল সকালে রাজধানীর হোসনী দালান এলাকা থেকে আবদুল কাদেরকে আটক করা হয়।

নুসরাত ৬ এপ্রিল সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় আলিম পরীক্ষার কেন্দ্রে গেলে ভবনের ছাদে বান্ধবীকে মারধরে খবর দেয়া হয়। সেই খবরে নুসরাত ছাদে গেলে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দায়ের করা যৌন হয়রানির মামলা তুলে নেয়ার কথা বলে পাঁচ বোরকা পরিহিতা। এতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে জোর করে ছাদে শুইয়ে কেরোসিন ঢেলে দেয়া হয়। তারপর গায়ে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যায় আক্রমণকারীরা। পরে নুসরাতকে উদ্ধার করে ফেনী ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনেট চিকিৎসা দেয়া হয়। ১০ এপ্রিল চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুসরাত জাহান রাফি।

ডেইলি বাংলাদেশ


এ জাতীয় আরো খবর